“এসএসএল সার্টিফিকেট কী ব্যবহার সতর্কীকরণ”

এ দেশে যেকোনো নির্বাচন অনুষ্ঠানের পূর্ববর্তী ও পরবর্তী সময়ে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতির বেশি অবনতি লক্ষ্যণীয়। এটি নিয়ন্ত্রণে রাখতে আগে থেকে ব্যবস্থা নেয়ার বিকল্প নেই। সাম্প্রতিক সময়ে ছিনতাই বাড়ার একটি কারণ হিসেবে অনেকে বলছেন আসন্ন ডিসিসি নির্বাচনের কথা। এ ক্ষেত্রে আগে থেকে সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নেয়ার কথাও বলেছেন সিইসি। ডিসিসি নির্বাচনে তার বলিষ্ঠতা ও নিরপেক্ষতা দেখতে চাইবেন সবাই। কিছু সমালোচনা সত্ত্বেও সাবেক সিইসির ওপর মানুষের আস্থা ছিল অনেকটাই। তারা নতুন সিইসির কাছে আশা করেন আরও বেশি।

অকল্পনীয় মজুদ না থাকলেও দেশে প্রাকৃতিক গ্যাসের প্রাচুর্য রয়েছে বলা যেতে পারে; তবে অফুরন্ত নয় সেটি। এখানকার তাপবিদ্যুৎ মোটামুটি গ্যাসনির্ভর এখন। এর প্রচুর চাহিদা রয়েছে কল-কারখানায়। অধিক পরিবেশবান্ধব জ্বালানি হিসেবে সিএনজি ব্যবহারে প্রণোদনা জোগানোয় এটির ব্যবহার বেড়েছে যানবাহনে। গৃহস্থালীতে গ্যাসের ব্যবহার তো রইলই। সমস্যা হলো, প্রাকৃতিক গ্যাসের ক্রমবর্ধমান চাহিদার সঙ্গে সরবরাহের তাল মেলানো কঠিন হয়ে পড়ছে দিন দিন। এ জন্য বেশ কিছু সমন্বয়মূলক পদক্ষেপও নিতে হয়েছে সরকারকে। নতুন নিবন্ধিত অনেক কারখানায় দেয়া হচ্ছে না গ্যাস সংযোগ; একই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে গৃহস্থালীতে গ্যাস সরবরাহেও। ভোক্তা নিরুৎসাহিতকরণে সিএনজির দাম বাড়ায় হয়েছে কয়েক দফায়। এমন পরিপ্রেক্ষিতে অনেকের শঙ্কা, নতুন গ্যাস ক্ষেত্র আবিষ্কার না হলে হোঁচট খেতে পারে আমাদের অর্থনৈতিক উন্নয়।

দেশে খাদ্যপণ্য বিশেষত মাছে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত ফরমালিন বন্ধ করতে না পেরেই হয়তো সম্প্রতি নতুন ১০টি ফরমালিনমুক্ত মাছ বিক্রয়কেন্দ্র চালুর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে রাজধানীতে। গতকালের বণিক বার্তায় প্রকাশিত এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনে বলা হয়, এরই মধ্যে ঢাকায় মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশনের ৬টি ভ্রাম্যমাণ ও ২টি স্থায়ী বিক্রয়কেন্দ্র এবং কয়েকটি সুপার চেইন শপে ফরমালিনমুক্ত মাছ পাওয়া গেলেও নগরবাসীর বর্ধমান চাহিদা মেটাতেই নেয়া হয়েছে এমন উদ্যোগ। মাছের মতো না হলেও ক্ষতিকর রাসায়নিক ফরমালডিহাইডের এ জলীয় দ্রবণ বিপুল পরিমাণে ব্যবহৃত হচ্ছে সবজি ও ফলমূল সংরক্ষণেও। এ অবস্থায় অনেকের পক্ষ থেকে ফরমালিনমুক্ত ফল ও সবজি বিক্রয় কেন্দ্র প্রতিষ্ঠার দাবি উঠতে পারে। রাজধানী ও এর আশপাশে মাঝে মাঝে ও বন্দরনগরী চট্টগ্রামে হঠাৎ হঠাৎ ফরমালিনযুক্ত খাদ্যপণ্যবিরোধী অভিযান চালানো হলেও অন্যান্য বিভাগীয় ও জেলা শহরগুলোয় তেমনভাবে দেখা যায় না এটি। অথচ সারা দেশেই এ সমস্যাটি প্রকট হয়ে উঠেছে। এ ক্ষেত্রে তাদের পক্ষ থেকে এমন দাবিও অসঙ্গত হবে না যে, রাজধানীতে নতুন বিক্রয় কেন্দ্র চালুর আগে কমপক্ষে প্রতিটি বিভাগীয় শহরে দুটি করে ফরমালিনমুক্ত খাদ্যপণ্য বিক্রয় কেন্দ্র চালু করা হোক।

ইদানীং কলচার্জ ও পালসের ক্ষেত্রে নিম্নসীমা বাস্তবায়নেই বেশি জর লক্ষ্যণীয় হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে উর্ধ্বসীমা বাস্তবায়নেই বেশি দৃষ্টি দেয়া দরকার বলে মনে করেন অনেকে। তার মতে, নির্দিষ্ট পরিমাণের বেশি কেউ কলচার্জ নিতে পারবে না বা পালস রেট এর বেশি হতে পারবে না- তা বাস্তবায়নেই বেশি মনোযোগী হওয়া উচিৎ বিটিআরসির। গত কয়েক বছরে এ দেশে ইন্টারন্যাশনাল কলের দানা-প্রদান বেড়ে। এ ক্ষেত্রে ভিওআইপি কল নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি কলচার্জ কমানোয়ও দৃষ্টি দেয়া দরকার। আবার প্রি-পেইডে স্বাধীনতা দিয়ে প্লেইন প্যাকেজে কলরেট ও পালস নির্দিষ্ট সীমায় রাখতে বাধ্য করা যেতো অপারেটরদের। তাতে অপারেটরদের ব্যবসা বাড়ার সুযোগ পেতো। বিটিআরসির নিয়ন্ত্রণ আরও সংহত হতো এ খাতে।

তিন দিনের সফর শেষে তুরষ্ক থেকে শুক্রবার দেশে ফিরেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সফরকালে দু’দেশের মধ্যে অবাধ বাণিজ্য চুক্তি (এফটিএ) সম্পাদন ও চট্টগ্রাম-ইস্তাম্বুল ফ্লাইট সার্ভিস চালুর ব্যাপারে একমত হয়েছেন বাংলাদেশ ও তুরষ্ক সরকার। এ সময়ে স্বাক্ষরিত হয়েছে কয়েকটি চুক্তি, সমঝোতা স্মারক, অভিপ্রায়পত্র ও প্রটোকল। এসবের মাঝে গুরুত্বপূর্ণ হলো, বিনিয়োগ বৃদ্ধি, নিরাপত্তা, কূটনীতিক ও বিশেষ পাসপোর্টধারীদের ভিসা ব্যবস্থা বিলুপ্তকরণ, শুল্ক সহযোগিতা, কৃষি ক্ষেত্রে বৈজ্ঞানিক ও কারিগরি সহায়তা এবং সাংস্কৃতিক, বৈজ্ঞানিক ও শিক্ষা বিনিয়ময় কর্মসূচি সংক্রান্ত কয়েকটি চুক্তি। চুক্তিগুলো বাস্তবায়নে উভয় দেশকেই মনোযোগী হতে হবে। এগুলো বাস্তবায়িত হলে দু’দেশটি লাভবান হবে নিঃসন্দেহে।

ঈশ্বরদীর ৬৪ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৪ হাজার ১৮৮ জন জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) ৫৭২ জন অংশ গ্রহণ করেন। জেএসসিতে মোট পাস করা শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৪ হাজার ৩৫১ জন, জেডিসিতে পাসের সংখ্যা ৫০০ জন। 

অনেকের অভিযোগ, দক্ষতার সঙ্গে অন্যান্য কার্যক্রম পরিচালনা করলেও গ্রাহক সেবা মানের ঘাটতি রয়েছে এখানকার ব্যাংকগুলোর। ঋণ নিতে গেলে অনেক সময় প্রয়োজনীয় দেখানোর পরও পোহাতে হয় দুর্ভোগ। যেসব ব্যাংক ‘খুচরা’ গ্রাহকের ওপর নির্ভরশীল নয়, সেখানে নাকি গ্রাহক সেবার মান কম। অনেক ক্ষেত্রে বিনা কারণে নষ্ট করা গ্রাহকদের সময়। রেমিট্যান্স সেবা সংক্রান্ত অভিযোগও রয়েছে কারো কারো। ব্যাংকিং সেবার নানা জটিলতা ও অসহযোগিতার কথা শোনা যায় আউটসোর্সকারীদের মুখে। অধিকাংশ ব্যাংকই এখন দিচ্ছে এটিএম সেবা। এ নিয়েও অভিযোগ কম নেই- বুথে জাল টাকা পাওয়া যায়, অনেক সময় কাজ করে না সার্ভার নেটওয়ার্ক, মেশিনে টাকা থাকে না প্রভৃতি। এরই মধ্যে কয়েকটি ব্যাংক দিচ্ছে মোবাইল ব্যাংকিং সেবা। এ ক্ষেত্রেও এবং নিজস্ব গ্রাহক সেবা কেন্দ্র থাকার পরও ব্যাংক সেবার মান নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে অনেক গ্রাহকের। এসব বিড়ম্বনা রোধে সেনা সমর্থিত তত্ত্ববধায়ক শাসনামলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয় ব্যাংকে বড় হরফে ও সবার নজরে পরে এমন স্থানে সিটিজেন চার্টারসহ গ্রাহক সেবার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দেয়ালে টানিয়ে রাখার। আইন করা হলেও অনেক ক্ষেত্রেই এসব লংঘনের খবর পাওয়া যায়। মাঝে ব্যাংকে অভিযোগ বাক্স রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। সেটি কম-বেশি পালিত হয়ে আসছে; তবে এতে গ্রাহক সেবার মান কতটা বেড়েছে জানা যায় নি। শহর ও শহরতলীয় চেয়ে এসব নিয়ে অভিযোগ বেশি পল্লী অঞ্চলে। সুসংবাদ হলো, সম্প্রতি সেবার মান বাড়াতে বাংলাদেশ ব্যাংক গ্রাহক স্বার্থসংরক্ষণ কেন্দ্র চালু করেছে বলে প্রতিবেদন ছাপা হয়েছে বৃহস্পতিবার বণিক বার্তায়।

প্রথমেই আপনাকে অফিশিয়াল ক্লাউডফ্লেয়ার ওয়েবসাইটে যেতে হবে এবং একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে। সাইটের উপরের দিকে ডানপাশে একটি সাইন-আপ বাটন দেখতে পাবেন, যেটাতে ক্লিক করার মাধ্যমে একটি সাইন-আপ ফর্ম চলে আসবে, আর সেটাকে ফিল করার মাধ্যমে অ্যাকাউন্ট সাইন-আপ করে নিন। এখানে অ্যাকাউন্ট সাইন-আপ করা একেবারেই সহজ, শুধু মেইল অ্যাড্রেস আর পাসওয়ার্ড প্রবেশ করিয়ে নিলেই হলো। যদি আপনার আগে থেকেই একটি অ্যাকাউন্ট ক্লাউডফ্লেয়ারে তৈরি করা থাকে, তো এই স্টেপটি স্কিপ করলেও চলবে।

শুক্রবার বণিক বার্তায় প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছিল ‘অনলাইনে মুদ্রা কেনাবেচা থেকে বিরত থাকুন’ শিরোনামে। এতে অনুমোদিত ডিলার ও মানিচেঞ্জার ছাড়া বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময় দণ্ডনীয় অপরাধ বলে গ্রাহকদের সতর্ক করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। অবৈধ পথে আসা মুদ্রা বৈদেশিক বিনিময় হারে স্পষ্টতই ফেলে প্রভাব। বিদেশি মুদ্রার বিপরীতে টাকার অবমূল্যায়নেও এর অবদান রয়েছে। তাছাড়া রিজার্ভ সিস্টেমেও নেতিবাচক প্রভাব রয়েছে এভাবে আসা মুদ্রার। সম্ভবত এসব কারণেই কেন্দ্রীয় ব্যাংক সক্রিয় হয়ে উঠেছে অবৈধভাবে আসা মুদ্রা বিনিময় রোধে। কথা হলো, যেসব পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে, যথার্থই কার্যকর কিনা সেগুলো? কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলছে, বৈধ মানিচেঞ্জার ছাড়া অনলাইনেও বিনিময় করা যাবে না মুদ্রা। তবে ১৯৪৭ সালে প্রণীত ফরেন এক্সচেঞ্জ রেগুলেশন অ্যাক্টে কিন্তু স্বাভাবিকভাবেই ছিল না ই-কমার্সের ধারণা। এ অবস্থায় কেউ অনলাইনে উপার্জিত অর্থ সেখানেই ব্যয় করে বা হুন্ডির মাধ্যমে দেশে নিয়ে এলে সহজ হবে না বিদ্যমান আইনের প্রয়োগ। অথচ অনলাইনে উপার্জিত অর্থ সহজে দেশের আনার সহজ ব্যবস্থা নেই বাণিজ্যিক ব্যাংক মানিচেঞ্জার প্রতিষ্ঠানগুলোয়।

এই ছিল গেল সপ্তাহের ই-কমার্সের হালচাল। আগামী শুক্রবার নতুন সপ্তাহের খবরাখবর নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হবো। আর আপনাদের নিজেদের কোন অনলাইন শপের ইভেন্ট নিউজ বা কোন চালু অফার থাকলে তা আমাদের কে জানাতে পারেন এখানে। সবার ছুটি আনন্দে কাটুক।

সতেন্দ্রনাথ বসু তখন ক্লাস নিতেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। একবার ছাত্রদের বোঝাচ্ছিলেন ‘বিকরণ’ ও ‘অতিবেগুনী বিপর্যয়’ (আলট্রা-ভায়োলেট ক্যাটাস্ট্রফি)। ক্লাসের এক পর্যায়ে তিনি শিক্ষার্থীদের বললেন, কেন জানি অনেক তত্ত্বই মেলে না গবেষণালব্ধ পরীক্ষার সঙ্গে। এর উদাহরণ দিতে গিয়ে তিনি পরিসংখ্যানের সহায়তা নিলেন। কিন্তু অংকে ভুল করে তিনি যেটি প্রমাণ করতে চাইছিলেন (পরীক্ষার ও তত্বের অসামাঞ্জস্যতা), বের করলেন তার উল্টো ফল। তার ওই ভুল সমীকরণ বলছিল, কোনো নির্দিষ্ট স্থান-কাল কাঠামোয় দুটি কয়েন একত্রে ‘টস’ করা হলে মোট সময়ের এক-তৃতীয়াংশই আসবে হেড-হেড। যেকোনো পরিসংখ্যানের ছাত্র বলবে, অংকটিতে ভুল হয়েছে; অথচ সমীকরণটি প্লাংক, ম্যাক্সওয়েল-বোলজম্যান ও হাইজেনবার্গের সমীকরণের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ। ফলে চিন্তিত সত্যেন্দ্রনাথ সমীকরণটি পাঠিয়ে দিলেন আইনস্টাইনের কাছে। এতে সামান্য সংশোধন এনে সেটি প্রকাশ করলেন আইনস্টাইন। কৃতজ্ঞতাস্বরূপ সত্যনেন্দ্রনাথের নাম আগে দিয়ে প্রস্তুত করলেন বোস-আইনস্টাইন স্ট্যাটিসটিক্স। এ সমীরকণটির সৌন্দর্য পরবর্তীকালে বিমোহিত করে তিনজন নোবেলজয়ী বিজ্ঞানী পল ডিরাক (স্যার আইজ্যাক নিউটনের পর ক্যাম্ব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের লুকাসিয়ান প্রফেসর অব ম্যাথামেটিকসের অন্যতম), মারে গেলম্যান (কোয়ার্ক শব্দটির প্রবক্তা) ও রিচার্ড ফেইনম্যানকে।

এদিকে তুরস্কের বিশ্ব হ্যাকার কম্যুনিটিতে বাজ নিউজ হিসেবে দেখা যাচ্ছে কোন এই সাইটের ডি.এন.এস ট্র্যাক করতে গিয়ে তারা দেখেছে ওদের ডেডেকেটেড সার্ভার বাংলাদেশের নড়াইল জেলার এক হাফিজিয়া মাদ্রাসায় রাখা হয়েছে।

Cyber Developer BD is a popular web host with simple, secure hosting. Whether you need fasted hosting or hosting that’s optimized for WordPress, Cyber Developer BD has a variety of plans to suit any website

এটি মূলত আপনার ওয়েব ব্রাউজার বা মেইল ক্লাইন্ট বা মেইল সার্ভার এবং ওয়েব সার্ভারের মধ্যে গোপন এবং নিরাপদ কানেকশন তৈরি করার জন্য ব্যবহৃত হয়। এটি কোন ওয়েবসাইটের পরিচয় অথিন্টিকেট করে এবং সকল তথ্যগুলোকে এসএসএল প্রযুক্তি ব্যবহার করে ইনক্রিপশন করে। এসএসএল সার্টিফিকেট যেকোনো ওয়েব সেশনকে সিকিউর তৈরি করার আশ্বাস প্রদান করে। এর মানে হলো, আপনার পাঠানো যেকোনো তথ্য একেবারে নিরাপদে ওয়েবসাইটটির কাছে পৌঁছে যাবে, এবং মাঝখানে কোন হ্যাকার বা ক্র্যাকার সেই তথ্য হ্যাক করতে পারবে না।

Infinix Note 4 ফোনটিতে 5.7 ইঞ্চির ফুল HD 2.5D কার্ভড গ্লাস ডিসপ্লে, 1.3GHz অক্টা-কোর MT6753 প্রসেসার, মালী -T 720 GPU, 3GB র‍্যাম যুক্ত। এই ফোনটির ইন্টারনাল স্টোরেজ 32GB’র যা মাইক্রো এসডি কার্ড দিয়ে 128GB অব্দি বাড়ানো যায়। এই স্মার্টফোনটি XOS বেসড অ্যান্ড্রয়েড 7.0 নৌগাট অপারেটিং সিস্টেমে চলে।

রোববার টাঙ্গাইলে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর প্রশিক্ষণ বিমান বিধ্বস্ত হলে আরোহী এক বিমান কর্মকর্তা নিহত ও অপরজন আহত হন। এতে মানুষের মৃত্যু তো বটেই, বিনষ্ট হলো এ ধরনের মানবসম্পদ গড়ে তোলায় সরকারের বিপুল খরচ ও দামি ওই বিমানটিও। কম উচ্চতা ও অনুকূল আবহাওয়াতেও অকস্মাৎ কী কারণে এটি ভূপতিত হলো সে বিষয়ে নিশ্চিত নন কেউই। আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর থেকে বলা হয়েছে, উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত শেষে এ বিষয়ে অবহিত করা হবে সবাইকে। বাংলাদেশে কেবল সামরিক নয়, বেসামরিক প্রশিক্ষণ ও বাণিজ্যিক বিমানও বিকল হয়ে পড়ার খবর বেশি শোনা যাচ্ছে কয়েক বছর ধরে। এ ক্ষেত্রে প্রধান অভিযোগ, আমাদের অনেক বিমানই মেয়াদোত্তীর্ণ। তার ওপর রক্ষণাবেক্ষণ খরচ বেশি হওয়ায় অনেক সময় অবহেলার কথাও শোনা যায়। দেশে নেই প্রয়োজনীয় অ্যারো ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কশপ। তাই অনেক ক্ষেত্রে ভালো বিমান প্রদর্শনপূর্বক স্থানীয় মেকানিক দিয়েই ত্রুটি সারানো হয়। জানা যায়, বিমান রক্ষণাবেক্ষণে বরাদ্দকৃত অর্থ নিয়ে নানা অনিয়মের কথা। এক শ্রেণীর কর্মকর্তা কম দামে নিম্ন মানের জ্বালানি ও খুচরা যন্ত্রাংশ কেনেন বলেও রয়েছে অভিযোগ। অথচ এসব বিষয়ে কর্তৃপক্ষ কঠোরতা অবলম্বন করলে মানুষের প্রাণ বাঁচত, ব্যয়বহুল যন্ত্রগুলো ধ্বংস হতোনা এবং কমে আসত বিমান পরিচালনার খরচও।

ইদানীংকালের অনেক চাকরি কোর্স-কারিকুলাম খায় না…। স্কিল, নলেজ, লিডারশীপ কোয়ালিফিকেশন খায়। তাই নামহীন ভার্সিটির দামহীন সাবজেক্টের অনেকেই দ্বিগুণ নলেজ, তিনগুণ স্মার্টনেস শো করে সুযোগ ম্যানেজ করে ফেলতে পারে। হয়তো নামি ভার্সিটির দামি সাবজেক্টের সীল থাকলে সেও ইন্টারভিউর ভিআইপি লাইনে থাকতে পারতো। সেই সুযোগ পাচ্ছে না দেখে, পরিশ্রম দিয়ে পুষিয়ে দিচ্ছে। তবে দুঃখের বিষয় হচ্ছে, বেশিরভাগ পোলাপান স্কিল ডেভেলপমেন্টের কম্পিটিশনে না নেমে, হতাশার এডিকশনে ভোগে। চেষ্টার পিছনে না ছুটে, ঢিলামির বাক্সে বন্দি থাকে। আড্ডার চাদর গায়ে দিয়ে, দুই সেমিস্টারে চার সাবজেক্টে ফেল করে।

‘এসেছে নবীন-ছাড়িবে রথ/ প্রবীণরা প্রস্তাবে পথ..বিদায় বেলায় ঘুরিয়ে মত/ দুলিয়ে কেবল সাফল্যের রথ.. এভাবেই মনের ভিতর সুপ্তাকাঙ্ক্ষা আরোহিত করে নবীন ও বিদায়ীরা। বিদায়ক্ষণ মুহূর্তে যে কেবল বিষাদ-যাতনা সেই প্রথার অবসান ঘটিয়ে নবীনদের উল্লসিত ভালোবাসায় সিক্ত সকল প্রাণয়ক। স্কুল শিক্ষাজীবনে শুরু ও শেষটার প্রকৃতি কেমন হয় সেই কথাগুলো জানাচ্ছেন আমাদের বার্তা প্রধান রিয়াদ ইসলাম

একটি অর্ডার হওয়ার পর অল্প সময়ের মধ্যেই যদি আপনার অপরেটর ক্রেতার সঙ্গে যোগাযোগ করে, তাহলে আপনার ক্রেতা আপনাকে নির্ভরযোগ্য মনে করবে। অর্ডার ডেলিভারি হতে যদি দেরি হয়, তাহলে দ্রুত ক্রেতাকে বিষয়টি জানিয়ে দেওয়া উচিত এবং তার কাছে সময় চেয়ে নেওয়া উচিত; এতে করে আপনার ক্রেতা অপেক্ষা করে বিরক্ত হবে না। অর্ডার ডেলিভারি হওয়ার পর যদি আপনি তাকে এক মিনিট কল করে তার কাছে আপনার ওয়েবসাইট থেকে কেনাকাটার অভিজ্ঞতা জানতে চান তাহলে ক্রেতা খুশি হবে। এভাবে সুন্দর ব্যবহারের সাথে নিরবচ্ছিন্ন যোগাযোগের ফলে আপনার প্রতি আপনার ক্রেতার নির্ভরযোগ্যতা এবং আকৃষ্টতা উভয়ই বৃদ্ধি পাবে।

মাংশাসী পশুদের দখলকৃত অঞ্চল থেকে হয় পরাজিতটি নিজে চলে যায়, নয়তো বিদায় নিতে হয় দুঃখজনকভাবে। গভীর ভাবে লক্ষ্য করলে বাংলাদেশে চলমান রাজনীতির সঙ্গে এর মিল পাবেন অনেকে। এখানেও ক্ষমতার পালা-বদলের সঙ্গে অনেক বিষয়ে পরিবর্তন আসে সমাজ কাঠামোয়। সরকার পক্ষের ছাত্র সংগঠন আবাসিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দখল নেয়; আপোসে না গেলে বলপ্রয়োগ করতে হয় বিরোধীকে। সমাজ ব্যবস্থার ওপর থেকে একেবারে তৃণমূল পর্যন্ত ঘটে একই পরিবর্তন। প্রাকৃতিক এ নিয়ম নিয়ে তেমন আক্ষেপ-অসন্তোষ দেখা যায় না কোনো পক্ষেই। কারণ সবাই জানেন, পাঁচ বছর পর পর ক্ষমতায় আসার সুযোগ পাওয়া যায়।

শিল্পোন্নত নতুন এ দেশটির সঙ্গে আমাদের মিল রয়েছে অনেক ক্ষেত্রে। উভয় দেশই উদার মুসলিম রাষ্ট্র হিসেবে বিশে পরিচিত। তাছাড়া এদের মধ্যে আর্থ-সামাজিক ব্যবধানও বেশি নয়। এ অবস্থায় প্রচলিত পণ্যের পাশাপাশি দেশটিতে ব্যাপকহারে ঔষধ, সিরামিক, চামড়াজাত পণ্য রফতানির সুযোগ থাকলেও সেটি কেন কাজে লাগানো যাচ্ছে না খতিয়ে দেখা দরকার। তুরষ্কের অর্থনীতিতে এফডিআইয়ের অবদান প্রচুর। দেশটির পর্যটনশিল্পও বেশ উন্নত। এ ক্ষেত্রে তাদের কাছ থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে স্থানীয় মানবসম্পদ গড়ে তোলায় উদ্যোগ নেয়া যেতে পারে। সেখানে প্রশিক্ষোন দিয়ে ইউরোপে দক্ষ জনশক্তি রফতানিও করতে পারি আমরা।

আপনার ওয়েবসাইটের জন্য নিন দেশের সেরা হোস্টিং সার্ভিস। পিওর এসএসডি স্টোরেজ এর সাথে ৩ স্তরের ব্যাকআপ প্রটেকশন। আর কি চাই, তাই না? এক্সটেন্ট আইটি তে হ্যালোয়েন উপলক্ষে পাচ্ছেন সকল এসএসডি শেয়ার্ড হোস্টিং প্যাকেজে… More ৩০% ডিসকাউন্ট

একটি মৌলিক এসএসএল সার্ট (GoDaddy থেকে সবচেয়ে সস্তা) কেবল আপনাকে একটি কী প্রদান করে যা আপনাকে আপনার সার্ভার এবং আপনার ব্যবহারকারীদের মধ্যে ডেটা এনক্রিপ্ট করতে দেয়. এইগুলি অবিলম্বে জারি করা যেতে পারে কারণ তারা পরিচয়পত্রের কোন গ্যারান্টি দেয় না, ট্র্যাফিক এনক্রিপ্ট করার ক্ষমতাও.

১৯৯৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রে বেড়াতে গিয়েছিলেন জ্যাক মা। তিনি তখন চীনের একজন সাধারণ স্কুল শিক্ষক। মান্দারিন ভাষাভাষি চীনা ব্যবসায়ীদের সহায়তা করার জন্য একটি অনুবাদ কেন্দ্র খুলেছিলেন তিনি। ওই অনুবাদ কেন্দ্রের কাজেই যুক্তরাষ্ট্রে যান। যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে পরিচিত হন ইন্টারনেট প্রযুক্তির সাথে। জ্যাক মা জানতে পারেন, সবকিছুই জানা যায় ইন্টারনেট থেকে।

বাংলাদেশে এবারের কোরিয়ায় অনুষ্ঠিত শীতকালীন অলিম্পিকে যোগদান করেনি; কিন্তু ইসরায়েল ও মরক্কো যোগদান করেছে; বাংলাদেশে বরফ পড়ে না, মরক্কোর কিছু এলাকা মরুভুমি। দেশে পড়ালেখা কম, শান্তি কম,যাদের… …বাকিটুকু পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *